Posts

কবিতা১৪ঃ- কুয়েতে বৈশাখী মেলা।

Image
কুয়েতে বৈশাখী মেলা  আব্দুর রহিম  ♡♡♡♡♡♡♡♡♡♡ কাঠ ফাটা রোদ এখনো পরেনি  বসন্ত হাওয়া বয় , মরুর বুকে সবুজের সমোরহ ভরে গেছে কিশালয় । কোথাও কোথাও সবুজের মাঠ সবুজ বৃক্ষ ছায়া , স্মৃতি মন্থনে এনে দেয় যেন  দেশের মাটির মায়া ।
শতো ব্যস্ততার মাঝে ও রাখি হৃদয়ের দর্পণে , মিলে মিশে তাই স্বাগত জানাই নবীন দিনের ক্ষনে । রিগাই পার্কে সুধীদের ডাকে বৈশাখী মেলার ধুম , হরেক রকম পিঠা বানাতে  কাড়িয়ে নিয়েছে ঘুম ।
বুবু ও ভাবীরা সুনিপুণ হাতে  বানিয়েছে কতোনা পিঠা , আহা কি মজা পেট ভরে খাই  লাগছে কতোনা মিঠা । ভাইরা বসেছে ভাবীরা বসেছে  কতোনা পসরা লয়ে , রুবিনা বুবুর কানেকসন গারমেন্টস কিনেছে মুগ্ধ হয়ে ।
বেলুন ফেস্টুনে মুগ্ধ করেছে  খোকা খুকুর মন , দু-হাতে উড়িয়ে আনন্দ উৎসবে  মেতেছে সারা ক্ষন । বাংলার নারী পরে লাল শাড়ি  কেহ কেহ থ্রিপিস , মেলা অঙ্গনে বঙ্গ পরীরা আসতে করেনি মিস ।
হেলে দুলে চলে কতো কথা বলে  সখীদের কাছে পেয়ে , দুলাল দুলালী ছুটা ছুটি করে  বৈশাখী গান গেয়ে । পালকি একতারা তৈজসপত্র যা ছিল  ভুলু ভাইয়ের ঘরে , নিপুণ হাতে সাজিয়ে রেখেছে  দর্শনে মুগ্ধ করে ।
কবিরা নিয়েছে কবিতা আর শিল্পীরা গেয়েছে গান , মুগ্ধ হয়েছে দর্শক শ্রোতা আনন্দে ভরেছে প্র…

কবিতা১৩ঃ- রমজানের আহ্বান আব্দুর রহিম।

Image
রমজানের আহ্বান আব্দুর রহিম  ☪☆☪☆☪☆☪☆☪☆☪☆ এসেছে রমজান মুক্তির আহ্বান  শোন হে মুসলমান , প্রভূর কাছে পানাহ চাও আজি খুলে তব দেহ প্রান । হিংসা বিদ্বেষ ভুলে আজি তাই রাখো সবাই হাতে হাত , মোদের গুনাহ মাফ করে দেও  করো সবে মোনাজাত ।
নামাজ রোজা হজ্জ যাকাত কায়েম করো সবে , প্রভূর বিধান মেনে চলো যতো দিন ধরায় রবে । পিতা মাতা ভগ্নি ভ্রাতা  পরিবার পরিজন যারা , কখনো যেন ব্যথিত না হয়  তোমাদের কারো দ্বারা ।
তাদের মনে আঘাত দিওনা  রাখিও না অনাহারে , তোমরাও খাও তাদের ও খাওয়াও  ভুলোনাকো কেউ কারে । জীবিত-মৃতঃ পিতা মাতা  আছে যারা কবর বাসী ,  । দু'হাত তুলে করো দোয়া  যতো পারো রাশি রাশি ।
দান খয়রাত দিও সাধ্য মতো পারো যে যতো টুক , আত্মা তাদের শান্তি পাবে কবরে পাবে সুখ , গরীব দুঃখি ভিখারি মুসাফির  যদি আসে কভূ কাছে , ফিরিয়ে দিওনা কিঞ্চিত্ দিও যা কিছু তোমাদের আছে ।
রোগে শোকে বিপদে আপদে আছে যারা ধরার বুকে,  দুঃখ গ্লানি মুছে প্রভূ রাখিও মোদের সুখে । এই রমজান মুক্তির মাস করি সবে ফরিয়াদ , মাফ করে দেও প্রভূ মোদের  দিয়ে তব রহমত ।

কবিতা১২ঃ- বিবেক হারা আব্দুর রহিম।

Image
বিবেক হারা আব্দুর রহিম ♡♡♡♡♡♡♡♡♡♡ লিখছে যারা বিবেক হারা  পশুর চেয়ে অধম , ভালো কাজে আগায় নাতো বাড়ায় নাকো কদম । শিশু কালে না শিখিলে  শিখবে কবে আর ? কঁচি মনে বাঁধা পেলে  রুদ্ধ আলোর দ্বার ।
ঐ কমিটিতে আছে যারা  আছে যতো জন , নামাজ পড়ে রোজা রাখে নেইতো পূত মন । তারা ও যেমন তেমনি তেমন  তাদের ছেলে মেয়ে , তাইতো করে হৈ হুল্লুরী মসজিদে যেয়ে ।
বাপ মা যদি ভাল হয়  ছেলে মেয়ে ও তাই , আঁধার ঠেলে আনবে ঘরে আলোর জগত্টাই । হলফ করে বলতে পারি ঐ কমিটিতে যারা , সুদ ঘুষে জীবন চালায় মুখোশ ধারি তারা ।
কঁচি কাঁচা ছেলে মেয়ে  ফুলের মতো মন , আলোর পথে আনতে হবে  এখন শুভ ক্ষন । কুয়েত কাতার সৌদি আরব অদ্য আরব দেশে , পিতা মাতা ছেলে মেয়ে  নামাজ পড়ে  মসজিদে এসে ।
মনটা তখন যায় জুড়িয়ে  জুড়ায় আমার প্রাণ , তবে কেনো শিশুর প্রতি  এতো বাঁধা প্রদান । কঁচি কাঁচা ছেলে মেয়ে  বাগ বাগিচার ফুল , আনতে হবে আলোর পথে ভেঙ্গে মোদের ভুল ।
তাইতো বলি সবার কাছে  ময়মুরুব্বী যাঁরা , নামাজ পড়বো সবাই মিলে  মেনে প্রভূর ধারা ।
কুয়েত  (10/05/2019)

কবিতা১১ঃ- এমন কেন ? আব্দুর রহিম।

Image
এমন কেন ? আব্দুর রহিম  ☪☪☪☪☪☪ চলার পথে বললো ডেকে  শুনেন কথা ভাই , দাওয়াত দিলে পাইনা তাঁরে বলুন কিছু তাই । রমজান হলো সবার জন্য  সবার দুয়ার খোলা , ডাকলে কেন আসে নাকো অন্য পথে চলা ?
উনারা হলেন অভিভাবক  মোদের পিতা মাতা , সুখে দুঃখে আপন মোদের  ঝড় তুফানের ছাতা । এক অনুষ্ঠানে যাবো আমি  অন্য অনুষ্ঠানে নয় , এমন হলে বিবেক বলে বিমাতা সুলভ হয় ।
আমরা যারা বিদেশ ভূয়ে প্রবাসে রই , সুখের দুঃখের সব কথাই  তাঁদের সাথে কই । ওনরা মোদের গুরুজন  দেশের প্রতিনিধি , তাঁদের মতো জ্ঞান গরিমা  দেয়নি মোদের বিধি ।
দাওয়াত দিলে আসলে পরে সবাই খুশি হই , আরনা হলে দুঃখ মনে  পথে চেয়ে রই । এমন কেন একটু যেন  মিলে মিশে থাকি , সুখে দুঃখে পাইগো যেন যখন আপনায় ডাকি ।
26/05/2019

Photo Credit Google

কবিতা১০ঃ- মজার খবর আব্দুর রহিম।

Image
মজার খবর আব্দুর রহিম  ●●●●●●●●●●●●● এর চেয়ে মজার খবর  আছে কোথায় ভাই ? ইমিগ্রেশন পাড় হলো পাসপোর্ট ছাড়াই । কেমন মোদের ইমিগ্রেশন  কেমন অফিসার ? কেমন করে পাড় হলো প্রশ্ন হলো সবার ?
খেঁটেল খাটা প্রবাসীরা  যায়গো যখন দেশে , চেক করার ধরণ দেখে  তিক্ততা হয় শেষে । তারা তখন লেবার শ্রমিক   গন্ধ আসে বুঝি ? তাদের বেলায় চেক করে  এটা ওটা খুঁজি ।
উনি বুঝি বিমান পাইলট  চেকের দরকার নাই ? এই কি বুঝি নিতীমালা  ইমিগ্রেশনে পাই । শ্রমিক পাইলট বুঝিনা আমি  বুঝিনা মিনিস্টার , আসা যাওয়ায় চেক করবে  ডিউটি হলো তার ।
ইমিগ্রেশনে এমনি যদি  অবহেলায় চলে , কেমন করে চলবে এদেশ দিবেন কেহ বলে ? এমনি হলে বিদেশ ভূঁয়ে যাবে দেশের মান , রক্ত দিয়ে এদেশ গড়া রাখুন সবাই দেশেরী সম্মান ।
06/06/2019
Photo Credit :- Google 👎

কবিতা৯ঃ- আজকে মোদের জন্মদিন আব্দুর রহিম।

Image
আজকে মোদের জন্মদিন আব্দুর রহিম  ♡♡♡♡♡♡♡♡♡♡ আজকে মোদের জন্মদিন  ধরায় পেলাম ঠাঁই , দু'ভাই মিলে সবার কাছে  তাইতো দোয়া চাই । আমি থাকি বিদেশ ভূঁয়ে  ভাইয়া থাকে বাড়ি,  আমার জব ম্যাকানিক্যাল ভাইয়ারতো ডাক্তারী ।
এই দিনে জন্ম মোদের  পাঁচ মিনিটের আগপাচ , শ্রদ্ধা ভক্তি স্নেহ মমতা  কমতি নেইতো আজ । ভাইয়ার আছে পাঁচটি সন্তান  আমার আছে দুটি , খেয়ে দেয়ে প্রভূর দোয়ায়  আছি মোটা মুটি ।
আমরাতো ভাই সহজ সরল ঝুট ঝামেলায় নাই , কাছে পেলে প্রমাণ মিলবে  বলবে যে সবাই । দোয়া করবেন প্রভূর দয়ায়  যতো দিন বাঁচি , প্রনয় প্রীতির বন্ধনে তাই থাকবো কাছা কাছি ।
Abdur Rahim Arab Times  Kuwait  13 /06/2019
কবি আব্দুর রহিম ও তার ভাই করিম ডক্টর

কবিতা৮ঃ- নিরাপদে এসে গেছি আব্দুর রহিম।

Image
নিরাপদে এসে গেছি আব্দুর রহিম  ♤♡♢♧☆♤♡♢♧☆ নিরাপদে এসে গেছি আমার গাঁয়ের বাড়ি ,  ঝুট ঝামেলা হয়নি পথে  আসছি তাড়াতাড়ি ।
রাত দেড়টায় প্লেন ল্যান্ড  ইমিগ্রেশন শেষে , জলদি করে গাড়ি চড়ে  ফেরি পেলাম এসে ।
সবুজ শ্যামল গাঁও পেরিয়ে  সা সা করে গাড়ি  কোকিল ডাকা শুভ্র ভোরে  সারে সাতটায় বাড়ি ।
হাজার শুকুর প্রভুর কাছে  বন্ধু বান্দব যাঁরা , আমার জন্য দোয়া করছেন  সুখে থাকুন তারা ।
প্রভু তুমি দয়ার সাগর  রহিম রহমান , সুখ শান্তিতে রেখো মোদের মর্তে যতো প্রান ।
(14/06/201 শুক্রবার বিকেল সারে তিনটায় প্লেনে যাত্রা 15/06/2019 সকাল 7•30 টায় আল্লাহ্ পাকের অশেষ রহমতে ও আপনাদের পূতপবিত্র দোয়ার বরকতে নিরাপদেই বাড়ি এসেছি । সবাই সুখে শান্তিতে থাকুন এই দোয়া করি )
নিচে কবি আব্দুর রহিম এর ছবি 👎